STORIES for CHILDREN by Sister Farida

(www.wol-children.net)

Search in "Bengali":

Home -- Bengali -- Perform a PLAY -- 074 (Beating the innocent 2)

Previous Piece -- Next Piece

নাটক -- আপনার বন্ধুদের জন্য সঞ্চালন করুন !!
শিশুদের সঞ্চালন জন্য না

74. নির্দোশকে প্রহার-২


নতুন শিক্ষক সম্পূর্ণ ভিন্ন চরিত্রের লোক। এমন কি অহংকারী জিম পর্যন্ত নির্বাক হয়ে গেল তাঁর শিক্ষার পদ্ধতি দেখে। শিক্ষক প্রার্থনা দিয়ে শুরু করলেন তারপর দ্বিতীয় বিষয় নিয়ে কথা।

শিক্ষকঃ ‘আমরা যদি সবকিছু ভালোভাবে শুরু করতে চাই তবে আমাদের স্কুলের শৃঙ্খলা রক্ষাকল্পে নতুন নিয়ম কানুন চালু করতে হবে। আমি চাই তোমরা সে বিষয়ে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে।’

এ কথায় জিমের মনে স্বস্তি ফিরে আসলো। ইতোপূর্বে কখনোই এমন ব্যবস্থা ঘটতে দেখা যায় নি।

ছাত্রীঃ ‘একজনের থেকে আর একজন নকল করো না।’

শিক্ষকঃ ‘তা ভালো। তবে নিয়ম-কানুন তখনই মূল্যবান হয় যখন ভঙ্গ করার জন্য শাস্তির ব্যবস্থা থাকে।’

জিমঃ ‘যে নকল করবে তার জন্য তিনটি ঘুষি পাওনা থাকবে।’

কি হচ্ছে! ছাত্রদের জন্য তিনটি বেত্রাঘাত প্রাপ্য। শিক্ষক এই নিয়মসহ অন্যান্য নিয়মকানুন ব্লাক বোর্ডে চক দিয়ে লিখে দিলেন। কয়েক সপ্তাহের জন্য সবকিছু বেশ সুন্দরই চলতে থাকলো। কিন্তু কোনো এক সকালে শিক্ষক শ্রেণি কক্ষে প্রবেশ করে বড়ই দুঃখ পেলেন।

শিক্ষকঃ ‘তোমাদের বইগুলো বন্ধ করো। একটি খারাপ খবর আছে। কেউ স্কুলের নিয়ম ভঙ্গ করেছে আর জিমের স্যান্ডুউইছ খেয়ে ফেলেছে। যে দোষ করেছ সে কি নিজের দোষ স্বীকার করবে?’

সকলে যেন নিথর হয়ে গেল। সর্বকনিষ্ঠ যে প্রথম সারিতে বসা ছিল টম সে প্রকম্পিত হলো।

টমঃ ‘আমি... আমিই তা করেছি... আমি ভীষণ ক্ষুধার্ত ছিলাম বলে আমি খেয়ে নিয়েছি।’

টমের পরিবার বড়ই গরিব, মাঝে মধ্যে পরিবারে প্রয়োজনীয় খাদ্যের ব্যবস্থাও করতে পারে না। কেউই তাকে শাস্তি দিতে চাইলো না। কিন্তু শিক্ষক সিদ্ধান্তে স্থির রইলেন।

শিক্ষকঃ ‘তোমরা নিয়ম চালু করেছো; অপরাধী অবশ্যই শাস্তি ভোগ করবে, নতুবা এখন আর কেউই আইন মানবে না। টম সবার সামনে চলে আস। চুরি করার দায়ে দশটি বেত্রাঘাত পাবে।’

শিক্ষক বেত হাতে নিলেন।

জিমঃ ‘থামুন, স্যান্ডউইচ আমার ছিল। আমি তাকে ক্ষমা করে দিয়েছি।’

শিক্ষকঃ ‘জিম, তোমার দয়ার প্রকাশ হলো, তবুও শাস্তি ভোগ করতে হবে।’

জিমঃ ‘তাহলে ওর পরিবর্তে আমাকে বেত্রাঘাত করুন।’

শিক্ষকঃ ‘ঠিক আছে। তাই হোক। কানুন সাব্যস্থ করছে দশটি বেত্রাঘাত, কিন্তু বলা হয় নি তা কে পাবে।’

তখন শ্রেণি কক্ষের সকলে দেখতে পেল অপরাধী ব্যক্তির পাওনা শাস্তি কি করে নির্দোষ ব্যক্তি পেতে পারে।

তখন থেকে জিম ও টমের মধ্যে বন্ধুত্ব স্থাপিত হলো। প্রত্যেকে শিক্ষকের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনলো। তখন শিক্ষক ঈসা মসিহের বিসয় বিস্তারিতভাবে বললেন, জগতের প্রত্যেক পাপীর যে শাস্তি প্রাপ্য ছিল তা কিভাবে তিনি নিজের উপর বহন করলেন।

শিক্ষকঃ ‘পূণ্য শুক্রবার আমাদের মনে করিয়ে দেয় নিষ্পাপ মসিহ আমাদের পাপের প্রায়শ্চিত্ত নিজের স্কন্ধে বহন করলেন। আমরা সকলে খোদার নিয়ম ভঙ্গ করেছি। যে কারণে মসিহ স্বেচ্ছায় আমাদের প্রাপ্য শাস্তি নিজের দেহে বহন করলেন। মৃত্যুর শাস্তি তিনি শোধ দিলেন যখন সলিবে নিজের প্রাণ কোরবানি দিলেন। যে কেউ তাঁর এ কোরবানিতে বিশ্বাস করে সেই অনন্তকালের জন্য পাপের পাওনা শাস্তির কবল থেকে মুক্তি লাভ করে ও লাভ করে অনন্তজীবন। পুনরুত্থান পর্ব হলো মসিহের অনন্ত জীবন ও মৃত্যু থকে জীবন লাভের নিশ্চয়তা।’


লোকবলঃ ভাষ্যকার, শিক্ষক, একজন ছাত্রী, জিম, টম

© Copyright: CEF Germany

www.WoL-Children.net

Page last modified on November 09, 2019, at 12:20 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)