STORIES for CHILDREN by Sister Farida

(www.wol-children.net)

Search in "Bengali":

Home -- Bengali -- Perform a PLAY -- 124 (The best counselor 1)

Previous Piece -- Next Piece

নাটক -- আপনার বন্ধুদের জন্য সঞ্চালন করুন !!
শিশুদের সঞ্চালন জন্য না

124. সর্বত্তোম পরামর্শদাতা-১


রাজ্য পরিদর্শনের সমস্ত ব্যবস্থা দ্রুত এগিয়ে চলছে। (গানের শব্দ)

পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে আর সুস্বাদু খাবার হলো পরিবেশিত। ইস্রায়েলের রাজা জিহোসাফতকে সম্ভাষণ দেবার আয়োজনটি ছিল অতুলনীয়। তিনি কি বুঝতে পেরেছিলেন যে এ নিমন্ত্রনের পিছনে ছিল ভিন্ন কোনো অসৎ উদ্দেশ্য। রাজা আহাব বিষয়টি সঠিকভাবে বুঝতে পেরেছিলেন।

আহাবঃ ‘রাজন জিহোযাশফত, রামোত এখনো আমার হাতে আসে নি। এ বিষয়টি আমাকে উদ্বেগাকুল করে তুলছে। আপনি কি আমাকে সাহায্য করবেন উক্ত শহরটি অধিকারভুক্ত করার জন্য?’

জিহোযাশফতঃ ‘অবশ্যই। আপনি আমার সৈন্যসামন্তের উপর ভরসা রাখতে পরেন। তবে সর্বপ্রথমে এ বিষয়ে খোদার সিদ্ধান্ত আমাদের জেনে নেয়া উচিৎ নয় কি? খোদা যা কিছু চান তাই আমার বাসনা।’

যে কোনো সিদ্ধান্ত সদাসর্বদা খোদার মনোনয়ন সম্মত হওয়া উচিত। রাজা জিহোয়াশাফতের দৃষ্টান্ত তোমাদের হওয়া উচিত। আমি মনে করি, তার জীবনে সাফল্যের মূল কারণ এটাই। সকলে জিহোয়শাফতকে ভালোবাসতেন। তাঁর লক্ষ লক্ষ সৈনিক ছিল। তাঁর শত্রুরা কেউই সাহস পেত না তাকে আক্রমন করার। বিভিন্নস্থান থেকে তিনি উপঢৌকন পেতেন। জিহোয়াশাফতের উপদেষ্টা ছিলেন স্বয়ং খোদা। প্রত্যেকটি সিদ্ধান্তের প্রশ্নে তিনি খোদার মনোনয়ন জেনে নিতেন। রাজা আহাব সম্পুর্ণ বিপরিত চরিত্রের লোক ছিল। এ পরামর্শ সে আদৌ পছন্দ করতে পারলোনা।

এ ধরনের অপছন্দনি হতে পারে আমাদের ক্ষেত্রে সর্বপ্রকার জটিলতার প্রশ্নে যখন কোনো লোককে খোদার কাছ থেকে ফয়সালা জেনে নিতে বলা হয়। সর্বোত্তম কাজ হবে রাজা আহাবের মতো সিদ্ধান্তে স্থির না থাকা।

আহাবঃ ‘আমাদের কি তাই করতে হবে? ঠিক আছে, সেবক, নবীদের জড়ো করো।’ (পদদ্বনির শব্দ)

আহাবঃ ‘রামোথ শহর আক্রমন করা আমাদের উচিৎ হবে কি?’

নবীঃ ‘আক্রমন করুন! নিশ্চয়ই আপনি বিজয়ী হবেন।’

রাজা আহাব খুশি হলেন। কিন্তু রাজা জিহোয়াশাফাত খুশি হতে পারলেন না। তিনি খোদার নির্দেশ বুঝতে পারলেন, এ সিদ্ধান্ত ঠিক হলো না। এই ৪০০ নবী সবকটা মিথ্যাবাদি, মিথ্যাবাদিরাই রাজা আহাবকে সে কথাই শুনালো যা রাজা আহাব শুনতে চেয়েছিল, তার কারণ তাদের প্রচুর উপঢৌকন দেয়া হয়েছিল আহাবের মন তুষ্টিজনক কথা বলার জন্য।

জিহোয়াশাফাতঃ ‘অন্যকোনো নবী নেই যাদের কাছে আমরা বিষয়টি জানতে পারি?’

আহাবঃ ‘আর একজন রয়েছে, কিন্তু আমি তাকে ঘৃণা করি। কারণ সে সদাসর্বদা দুর্দশার কথাই বলে বেড়ায়।’

জিহোযাশাফাতঃ ‘তাকে এখানে ডেকে আনুন।’

মিখায়া আসলেন। খোদার সত্যিকারের রাসুল যিনি মাঝে মধ্যে তামাশাচ্ছলে কথা বলেন।

আহাবঃ ‘মিখা, রামোথ আক্রমন করা আমাদের কি উচিৎ হবে?’

মিখাঃ ‘নিশ্চয়ই, আপনি শত্রুদের পরাভুত করবেন।’

আহাব (মানসিকভাবে বিপর্যস্ত): ‘তোমার সত্যবিষয়টি বলা উচিত। খোদা তোমাকে কি বলেছে?’

সে কি আসলে খোদার কণ্ঠ বা সিদ্ধান্ত শোনার জন্য প্রস্তুত ছিল? সম্ভবতঃ সে তেমন বিষয় শুনতে পেয়েছিল, কিন্তু তা করতে যান নি।

মিখা ভাবগম্ভীর হলেন।

মিখাঃ ‘খোদা আমাকে দেখালেন, আপনার সৈন্যসামন্ত শ্রীগ্রই পালকহীন মেষের মতো হতে যাচ্ছি। রাজা আহাব, আপনার সৈন্য বহর আপনাকে ছাড়া দেশে ফিরে আসবে।’

আহাব (ক্রুদ্ধ): ‘আপনি কি এ সকল কথা শুনেছেন? তিনি আমাকে আমার মৃত্যুর হুকুম দিয়েছেন। তাকে জেলখানায় বন্দি করো! এখনই।’

পরবর্তি নাটকে জানতে পারবে তারপরে কি ঘটলো। তোমরা শোনার জন্য কি প্রস্তুত থাকবে?


লোকবলঃ ভাষ্যকার, জিহোয়াশাফত, আহাব, মিখা, নবী

© Copyright: CEF Germany

www.WoL-Children.net

Page last modified on November 21, 2019, at 06:39 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)