STORIES for CHILDREN by Sister Farida

(www.wol-children.net)

Search in "Bengali":

Home -- Bengali -- Perform a PLAY -- 098 (Punishments and promises 2)

Previous Piece -- Next Piece

নাটক -- আপনার বন্ধুদের জন্য সঞ্চালন করুন !!
শিশুদের সঞ্চালন জন্য না

98. শাস্তি ও প্রতিজ্ঞা-২


মহিলাঃ ‘কখন নাগাদ বর্ষণ বন্ধ হবে?’

পুরুষঃ ‘সর্বোপরি নূহ তাহলে ঠিকই ছিলেন?’ (জাহাজের উপর বর্ষনের প্রথম পশলার শব্দ)

সকালঃ ‘আমাদের বাচাও! নূহ দরজা খোল, আমাদের ভিতরে আসতে দাও!’

বড়ই দেরী হয়ে গেল। খোদা নিজেই দরজা বন্ধ করে দিয়েছেন। তারা খোদার কথায় কর্নপাত করেনি। আর তাই এখন কর্মফল তাদের ভোগ করতেই হবে। যারা খোদার কথায় কর্নপাত না করে এটাই হলো তাদের জন্য প্রতিফল।

বানের পানি ক্রমেই বৃদ্ধি পেতে লাগলো, ঠিক তেমনটাই ঘটে চললো যেমন খোদা ৪০ দিবশ ও রাত্র একটানা বর্ষণের কথা বলেছেন। বর্ষা আর বর্ষা।

হতাশ হওয়া সত্তেও লোকজন বাচাঁর জন্য ছাদের উপর ও পর্বতের উপর চড়তে চাইলো। তথাপি সর্বোচ্চ সৃঙ্গটিও ১৬ ফুট পানির নীচে ডুবন্ত ছিল। মহাপ্লাবনে সকল জীবজন্তু ডুবে ডুবে মারা গিয়েছিল। কেবল নূহ তাঁর পরিবার এবং তার সাথে জাহাজে যারা আশ্রয় নিয়েছিল তারাই বেঁচে ছিলেন।

সমস্ত পানি নেমে যেতে পুরো একটি বৎসর লেগেছিল।

নূহঃ ‘আমি জানি না মাটি আবার শুকনো হলো কিনা। আমি এটা দাড়কাক পাঠাবো।’

নূহ একই কাজ করলেন একটি কবুতর প্রেরণের মাধ্যমে। তার ইচ্ছা ছিল, পিাখী গিয়া কোথাও শুকনো ভূমি পায় কিনা দাড়াবার মতো। কিন্তু তারা কোনো শুকনো ভূমি খুঁজে পেল না দাড়াবার মতো, তাই জাহাজেই ফিরে আসলো। এমনি এক সপ্তাহ অতিক্রান্ত হলো।

নূহঃ ‘আমি আর একটি কবুতর পাঠাবো।’

(দরজা খোলার শব্দ ও কবুতরের উড়ে যাবার শব্দ)

নূহের স্ত্রীঃ ‘দেখ! সে ঠোটে করে একটা সবুজ ডগা নিয়ে এসেছে।’

নূহঃ ‘আর দেরি নেই।’

তৃতীয় বারের মতো যখন কবুতরকে নূহ ছেড়ে দিলেন তখন উক্ত কবুতর আর ফিরে আসলো না। এক বৎসর পর সমস্ত পানি গড়ায়ে গেল ফলে ভূমি পুনরায় শুকনো হলো।

খোদা কথা বললেনঃ ‘নূহ, পরিবার পরিজন নিয়ে জাহাজ থেকে বাহির হয়ে এসো। আর সমস্ত প্রাণীকুল যেন জাহাজ থেকে বাহির হয়ে পড়ে। প্রজাবন্ত হও ও পৃথিবী মানুষে পরিপূর্ণ করো।’

জাহাজে যত কিছু আশ্রয় নিয়েছিল তারা সকলে শুকনো ভূমিতে বাহির হয়ে আসলো।

তুমি যদি নূহ হতে তবে তোমার সর্বপ্রথম কি করণীয় হতোঃ তিনি খোদার জন্য জাহাজ নির্মাণ করে একটি কোরবানি দিলেন। এভাবেই তিনি তার নাজাত লাভের জন্য খোদার কাছে ধন্যবাদ কোরবানি দিলেন। নূহ নিজের জীবন খোদার হাতে উৎসর্গ করে দিলেন। আর তাতেই খোদা হন মহাখুশি।

খোদা বললেনঃ ‘আমি কখনোই বান দিয়ে পৃথিবীকে আর ধ্বংস করবো না। যতদিন পর্যন্ত এ পৃথিবী টিকে থাকবে, গ্রীষ্ম, শীত, দিবশ ও রাত্র কার্যকর থাকবে। তোমার সাথে একটা চুক্তিতে আমি আবদ্ধ হবো। আর এ চুক্তির দৃষ্টান্ত হবে রংধনু।’


লোকবলঃ ভাষ্যকার, দুইজন লোক, মহিলা, নূহ, নূহের স্ত্রী এবং খোদা

© Copyright: CEF Germany

www.WoL-Children.net

Page last modified on November 09, 2019, at 03:25 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)